ক্ষুব্ধ হয়ে দায়িত্ব ছাড়লেন সুইডেনের প্রথম নারী প্রধানমন্ত্রী

ডেস্ক রিপোর্ট

0 2

সুইডেনের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো কোন নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন। কিন্তু সেই মুহুর্ত বেশিক্ষণ স্থায়ী হলো না। দায়িত্ব নেওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই পদত্যাগ করতে হয়েছে ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসনকে। এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে আল জাজিরা।

advertisement

advertisement

৫৪ বছর বয়সী অ্যান্ডারসন চলতি মাসের শেষের দিকে দলটির নেতৃত্বে আসেন। বুধবার (১৪ নভেম্বর) পার্লামেন্টে ভোটের সময় বিদায়ী নেতা স্টেফান লোফভেনের উত্তরসূরি হিসেবে তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হন। পার্লামেন্টর ১১৭ জন সদস্য তার পক্ষে ভোট দিয়েছে। অন্যদিকে তার বিরুদ্ধে ভোট পড়েছে ১৭৪টি। আর ভোট দেওয়া থেকে বিরত থেকেছেন পার্লামেন্টের ৫৭ জন সদস্য।

আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হওয়ার পর একটি বাজেট প্রস্তাবনা উত্থাপন করেছিলেন এ সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট নেতা। কিন্তু তাতে সমর্থন দেয়নি জোটসঙ্গী গ্রিন পার্টি। এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে দায়িত্ব পাওয়ার ১২ ঘণ্টা যেতে না যেতেই প্রধানমন্ত্রিত্ব ছাড়ার ঘোষণা দেন তিনি। তবে তিনি স্পিকারকে জানিয়েছেন, তিনি একক দলীয় সরকার, অর্থাৎ তার সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সরকারে নেতৃত্ব দিতে আগ্রহী।

advertisement

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য সুইডেনের ৩৪৯ আসনের সংসদে অ্যান্ডারসনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন ১১৭ জন, ভোটদান থেকে বিরত ছিলেন ৫৭ জন, বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ১৭৪ জন এবং একজন অনুপস্থিত ছিলেন।

সুইডেনের আইন অনুযায়ী, সংসদে একজন প্রধানমন্ত্রী প্রার্থীর জন্য সংখ্যাগরিষ্ঠ আইনপ্রণেতার সমর্থনের দরকার হয় না। প্রার্থীর সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাওয়ার প্রয়োজন নেই; তবে ১৭৫ জনকে বিপক্ষে ভোট দিতে হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.