সালমানের কারণেই ঐশ্বরিয়াকে বাদ দেন শাহরুখ

ডেস্ক রিপোর্ট

0 8

শাহরুখ খান এবং ঐশ্বরিয়া রায়। এক সময়ে বলিউডের সফল জুটি। ‘যোশ’-এর যমজ ভাই-বোন থেকে শুরে করে ‘মহব্বতে’ এবং ‘দেবদাস’-এ লিখেছেন প্রেম-বিরহের নতুন সংজ্ঞা। তবে বেশি দিন স্থায়ী হয়নি এই জুটি। সোনালী পর্দায় তাদের দেখা গেছে মাত্র দু’টি ছবিতে। তার পরেই শেষ। তবে এই তালিকা আরও দীর্ঘ হতে পারত যদি না বলিউডের আরেক অভিনেতা সালমানের উপর বিরক্ত না হতেন শাহরুখ।

advertisement

advertisement

‘চলতে চলতে’ ছবিতে প্রধান ভূমিকায় প্রথমে ছিলেন শাহরুখ-ঐশ্বরিয়া। ছবির শ্যুট এগিয়েছিল বেশ কিছু দূর। বেশ দ্রুতই এগিয়ে চলছিল কাজ। কিন্তু আচমকাই ছবি থেকে বাদ পড়েন নায়িকা ঐশ্বরিয়া। ব্যক্তিগত জীবনের টালমাটাল পরিস্থিতির কারণেই সেই ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ হাতছাড়া হয়েছিল তার। এর কারণ হিসেবে জানা যায়, সালমান খানের উপর বিরক্ত হয়েই ঐশ্বরিয়াকে না জানিয়ে ‘চলতে চলতে’ ছবি থেকে বাদ দেন শাহরুখ।

জানা যায় , সেই ছবির শ্যুট চলাকালীন সালমান খানের সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন ঐশ্বরিয়া। কিন্তু তত দিনে তাদের প্রেমের সম্পর্কটা অনেকটাই তিক্ততায় ভরে উঠেছিল। তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে ঝগড়ায় জড়াতেন সালমান। তুমুল ঝগড়া বাধত দু’জনের। ঐশ্বরিয়ার সব সহ-অভিনেতাকেই সন্দেহের চোখে দেখতেন তিনি। এর কারণে মাঝেমধ্যেই চলে যেতেন ঐশ্বরিয়ার ছবির সেটে। ব্যতিক্রম ঘটেনি ‘চলতে চলতে’-র ক্ষেত্রেও। আচমকাই এক রাতে ওই ছবির সেটে পৌঁছে যান সালমান। তখন একটি গানের শ্যুট শেষ করে পরের দৃশ্য শুরুর পরিকল্পনা চলছে। কিন্তু কোনও কিছুর তোয়াক্কা না করেই ঐশ্বরিয়ার সঙ্গে ঝামেলা শুরু করে দেন ‘ভাইজান’। চার ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ঝগড়া চলে সালমান-ঐশ্বরিয়ার। রেগেমেগে সেট থেকে বেরিয়ে যান সালমান। আচমকা এ ভাবে কাজে বিঘ্ন ঘটায় ক্ষুণ্ণ হয়েছিলেন পরিচালক আজিজ মির্জা। সে দিনের মতো কাজে ইতি টেনে দেন তিনি।

advertisement

এই ঘটনার পরেই ঐশ্বরিয়াকে ছবি থেকে বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন শাহরুখ। কাজের জায়গায় কোনও ধরনের সমস্যা চাননি কিং খান। তাই কোনও বাড়তি ঝামেলায় না গিয়ে সরিয়ে দেওয়া হয় ঐশ্বরিয়াকে। পরিবর্তে নায়িকার চরিত্রে আসেন রানি মুখার্জি।

এর আগে ঐশ্বরিয়া জানিয়েছিলেন, তাকে যে ছবি থেকে বাদ দেওয়া হবে, সে কথা তাকে আগে জানাননি শাহরুখ। এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, “যখন কোনও কারণ না দেখিয়েই এই ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, মানুষ চমকে যায়। তার ব্যাখ্যা চেয়ে আমি কখনও কাউকে কোনও প্রশ্ন করি না।”

যদিও পরবর্তীতে নিজের ভুল বুঝেছিলেন শাহরুখ। পরোক্ষ ভাবে ক্ষমাও চেয়েছিলেন ‘বন্ধু’ ঐশ্বরিয়ার কাছে। কিন্তু এ বিষয়ে আর কখনও কথা বলেননি তারা। তবে সব রাগ-অভিমান-খারাপ লাগা ভুলে ২০১৬ সালে কারান জোহরের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’ ছবিতে একসঙ্গে দেখা যায় দু’জনকে। যুগল হিসেবেই শাহরুখ-ঐশ্বর্য ছিলেন ছোট্ট দু’টি চরিত্রে।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.