ইউরোপে নীতিমালা পাল্টাচ্ছে হোয়াটসঅ্যাপ

ডেস্ক রিপোর্ট

0 5

চলতি বছরেই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) ডেটা সুরক্ষা আইনের ‘জেনারেল ডেটা প্রোটেকশন রেগুলেশন (জিডিপিআর)’-এর অধীনে হোয়াটসঅ্যাপকে ২২ কোটি ৫০ লাখ ইউরো জরিমানা করেছে আইরিশ নিয়ন্ত্রকরা। সেই জরিমানার পর এবার ইইউ ও যুক্তরাজ্যের নীতিমালা পাল্টে ফেলছে সামাজিক যোগাযোগের অ্যাপটি।

advertisement

advertisement

হোয়াটসঅ্যাপ নির্ধারিত জরিমানা নিয়ে আপিল করলেও একই সময়ে নিজস্ব নীতিমালা সংশোধন করছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা বিবিসি। পাশাপাশি, গ্রাহক সেবায় কোনো পরিবর্তন আসছে না বলে দাবি করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

বিবিসি জানিয়েছে, প্রাইভেসি প্রশ্নে তদন্ত শেষে আইরিশ নিয়ন্ত্রকদের নির্ধারিত ওই জরিমানা জিডিপিআর-এর ইতিহাসে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ; জরিমানার পাশাপাশি হোয়াটসঅ্যাপকে নিজস্ব নীতিমালা পরিবর্তনের নির্দেশও দিয়েছিল আইরিশ কর্তৃৃপক্ষ।

advertisement

হোয়াটসঅ্যাপ বলছে, নীতিমালার পরিবর্তনগুলো “বর্তমান নীতিমালার সঙ্গেই বাড়তি খুঁটিনাটি যোগ করবে” এবং কেবল গোপনতা নীতিমালার ইউরোপীয় সংস্করণের উপরই কার্যকর হবে। হোয়াটসঅ্যাপের বৈশ্বিক গোপনতা নীতিমালা ইউরোপীয় বাজারে প্রযোজ্য নীতিমালার চেয়ে আগে থেকেই ভিন্ন।

নীতিমালা পরিবর্তনের ঘোষণায় হোয়াটসঅ্যাপ বলেছে, “আমাদের কার্যক্রম বা অন্যদের সঙ্গে চুক্তিভিত্তিক সমঝোতায় কোনো পরিবর্তন আসছে না।” ব্যবহারকারীকেও নতুন কোনো কিছুতে রাজি হতে হবে না বা হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহার চালিয়ে যেতে নতুন করে কিছু করতে হবে না।”

নতুন নীতিমালা তাৎক্ষণিকভাবে কার্যকর হবে বলে জানিয়েছে বিবিসি। জানুয়ারি মাসে হোয়াটসঅ্যাপ নীতিমালার নতুন এক পরিবর্তন নিয়ে অভিযোগ তুলেছিলেন সাধারণ ব্যবহারকারীরা। সেবা গ্রাহকদের আশঙ্কা ছিল মূল প্রতিষ্ঠান ফেইসবুকের সঙ্গে ব্যবহারকারীদের ডেটা শেয়ার করবে হোয়াটসঅ্যাপ।

নতুন নীতিমালা মানতে রাজি না হলে তাদের অ্যাকাউন্টগুলো ব্লক করে দেওয়া হবে বলে আশঙ্কা করেছিলেন ব্যবহারকারীরা।

বিবিসি বলছে, আদতে খুব সামান্যই পরিবর্তন হয়েছিল হোয়াটসঅ্যাপের নীতিমালায়। কিন্তু ব্যবহারকারীদের শান্ত করতে আপডেট পিছিয়ে দিতে বাধ্য হয়েছিল প্রতিষ্ঠানটি, সাধারণ ব্যবহারকারীদের দৃষ্টিভঙ্গি বদলাতে টানা কয়েক মাস চেষ্টা করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

আইরিশ ‘ডেটা প্রোটেকশন কমিশনার (ডিপিসি)’-এর নির্দেশ মেনে আনা পরিবর্তনগুলো কার্যকর করার আগে হোয়াটসঅ্যাপ তাই স্বচ্ছতা বজায় রাখার বাড়তি চেষ্টা করছে।

“এই আপডেট আমরা কীভাবে ব্যবহারকারীর ডেটা ব্যবহার করি বা মেটাসহ কাদের সঙ্গে শেয়ার করি, তার কোনো কিছুই পরিবর্তন করবে না। আমরা আমাদের সেবাটি কীভাবে পরিচালনা করি, সে বিষয়েও কোনো পরিবর্তন আসবে না।”– বলছে প্রতিষ্ঠানটি।

হোয়াটসঅ্যাপ ঘোষণায় নিজস্ব ‘এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপশন’ সেবার উপর বাড়তি জোর দিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। নীতিমালায় নতুন পরিবর্তনের ফলে, ব্যবহারকারীর কাছ থেকে সংগৃহীত ডেটা কোন কাজ ব্যবহৃত হচ্ছে সে বিষয়ে আরও বিস্তারিত তথ্য যোগ হবে। পাশাপাশি, মূল প্রতিষ্ঠান মেটার সঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপ কীভাবে কাজ করে সে বিষয়েও পরিষ্কার তথ্য যোগ হবে নীতিমালায়।

বিবিসি আরও জানিয়েছে, ডিপিসি হোয়াটসঅ্যাপকে রেকর্ড পরিমাণ জরিমানা করেছিল প্রায় এক বছরের তদন্ত শেষে। সেবা গ্রাহকদের ডেটা কীভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে সে বিষয়ে হোয়াটসঅ্যাপ যথেষ্ট স্বচ্ছতা বজায় রাখে কি না, সেটি তদন্ত করে দেখেন নিয়ন্ত্রকরা।

প্রাথমিক অবস্থায় হোয়াটসঅ্যাপকে তিন থেকে পাঁচ কোটি ডলার জরিমানার প্রস্তাব করেছিল আইরিশ ডিপিসি। পরবর্তীতে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অন্যান্য দেশগুলোর নিয়ন্ত্রকদের বিচার প্রক্রিয়ার অংশ করে নির্ধারিত জরিমানার পরিমান বাড়িয়েছিল ডিপিসি।।

জিডিপিআর-এর অধীনে হোয়াটসঅ্যাপের চেয়েও বেশি জরিমানা গুণতে হয়েছে কেবল অ্যামাজনকে। তবে, হোয়াটসঅ্যাপ বরাবরই ব্যবহারকারী চাওয়ামাত্র তথ্য সরবরাহ করেছে বলে জরিমানার বিরুদ্ধে আপিল করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.