আমতলী হাসপাতালে পানি সরবরাহ বন্ধ, দুর্ভোগে রোগী

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

0 4

গভীর নলকুপের পানির স্তর নিতে নেমে যাওয়ায় তিন দিন ধরে আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। এতে দুর্ভোগে পরেছে হাসপাতালের রোগী, রোগীর স্বজন ও স্টাফরা। দ্রুত গভীর নলকুপ সংস্কার করে পানি সরবরাহের দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।
জানাগেছে, ১৯৯৩ সালে আমতলী উপজেলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পটুয়াখালী স্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তর গভীর নলকুপ স্থাপন করে।

স্থলভাগ থেকে ৮০ ফুট নিচে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন মর্টার বসিয়ে ওই গভীর নলকুপ থেকে পানি হাসপাতাল ও হাসপাতালের কম্পাউন্ডের মধ্যে সরবরাহ করা হয়। কিন্তু গত শুক্রবার হঠাৎ করে হাসপাতালে পানি সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। গত তিন দিন ধরে হাসপাতালে পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। পানি সরবরাহ বন্ধ থাকায় দুর্ভোগে পরেছে রোগী, রোগীর স্বজন ও হাসপাতাল কম্পাউন্ডে বসবাসরত স্টাফরা। দ্রুত হাসপাতালে পানি সরবরাহের দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা। খবর পেয়ে পটুয়াখালী স্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ গভীর নলকুপ পরিদর্শন করেছেন। তারা জানান পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় মর্টারে পানি পাচ্ছে না। ফলে পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। এ সমস্যা সমাধানে বেশ সময় লাগবে বলে জানান তারা।

সম্পর্কিত খবর

আমতলীর চার হরদরিদ্র পেল দুর্যোগ সহনীয় ঘর

জব্দকৃত অবৈধ জাল পুড়িয়ে ধ্বংস

রোগী রুমা বেগম ও হাফেজ ফকির বলেন, হাসপাতালে পানি নেই। পয়নিস্কাশনে খুবই সমস্যা। চার তলা থেকে নেমে নিচের টিউবওয়েল থেকে পানি আনতে হচ্ছে। দ্রুত পানি সরবরাহের দাবী জানান তারা।

আমতলী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আব্দুল মোনায়েম সাদ বলেন, হাসপাতালে পানি সরবরাহ বন্ধ থাকায় রোগী ও স্টাফদের খুবই সমস্যা হচ্ছে। দ্রুত সংস্কারের জন্য পটুয়াখালী স্বাস্থ্য প্রকৌশলীকে জানিয়েছি।

পটুয়াখালী স্বাস্থ্য প্রকৌলশী অধিদপ্তরের প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল জলিল বলেন, পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় মর্টারে পানি পাচ্ছে না। তাই পানি সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। তিনি আরো বলেন, বিষয়টি জটিল, তারপরও দ্রুত সময়ের মধ্যে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করবো।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.