নারায়ণগঞ্জে সাত বছরের শিশুকে অপহরণের পর খুন!

নজরুল ইসলাম বাবুল, নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

0 18

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে রিয়াদ (৭) নামে এক শিশুকে অপহরণের পর খুন করা হয়েছে। শিশুটির অর্ধগলিত লাশ আজ সকাল থানা এলাকার জালকুড়ির একটি ডোবা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ একজনকে আটক করেছে। আটকৃতের নাম সুজন (২৮)। সে গাইবান্দা জেলার মিয়া গ্রাম এলাকার কোরবান আলীর ছেলে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক শওকত জামিল জানিয়েছন, ২৮ এপ্রিল সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় শিশু রিয়াদের বাবা রাজু বাদি হয়ে রিয়াদ নিখোঁজের একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। ২৪ এপ্রিল ইফতারের পর সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী সোনামিয়া বাজার এলাকা থেকে নিখোঁজ হয় রিয়াদ। এর মাঝে রিয়াদের বাবার মোবাইলে ছেলেকে ফিরে পেতে দেড় লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে একটি ফোন আসে।

পরবর্তীতে সেই মোবাইলের কললিষ্টের সূত্র ধরে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। এক পর্যায়ে আমরা অপহরণকারীকে শনাক্ত করি। পরে বুধবার ভোরে সিদ্ধিরগঞ্জের চর সিমুলপাড়া এলাকা থেকে অপহরণকারী নিহত রিয়াদের দুরসম্পর্কের খালু সুজন (২৮)কে আটক করি। এরপর তার দেওয়া তথ্যানুযায়ী আজ সকালে জালকুড়ির তালতলা এলাকার একটি ডোবা থেকে শিশু রিয়াদ (৭) এর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করি। লাশ ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

নিহত শিশু রিয়াদ সিদ্ধিরগঞ্জের নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের চরশিমুল পাড়ার স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় পড়াশোান করতো। সে তার মা-বাবার কনিষ্ঠ সন্তান। আদমজী সোনামিয়া বাজার এলাকায় বাবা-মায়ের সাথে থাকতো শিশু রিয়াদ। বাবা সোনা মিয়ার গ্রামের বাড়ি গাইবান্দা জেলার খোলাহাটি ইউনিয়নের মিয়া গ্রামে।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জের অতিরক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী জানায়, শিশু রিয়াদ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে আমরা একজনকে আটক করেছি। প্রাথমিকভাবে এই হত্যাকান্ডের সাথে আরও একজনের জড়িত থাকার খবর পেয়েছি। তবে তদন্তের স্বার্থে আমরা এখনি তার নাম বলতে পারছি না। এ বিষয়ে বিস্তারিত পরে জানাতে পারবো। হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের কার্যক্রম পক্রিয়াধিন রয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.