আমতলীতে সেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকে মারধরের ঘটনায় প্রতিবাদ সভা

আব্দুল্লাহ আল নোমান, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি

0 5

আমতলী উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খাঁনের উপরে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা ও টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচার দাবীতে সভা করা হয়েছে। উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এমএ কাদের মিয়ার সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বরগুনা জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কেএম আবদুর রশিদ।

সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম মজিদ, বরগুনা পৌর সেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খাঁন, বরগুনা জেলা পরিষদ সদস্য অ্যাডভোকেট আরিফ-উল-হাসান আরিফ, অবসরপ্রাপ্ত সহকারী অধ্যাপক মোঃ আবুল হোসেন বিশ্বাস, আমতলী উপজেলা যুবলীগ সভাপতি জিএম ওসমানী হাসান, সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাহিদ দেওয়ান, উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খাঁন, সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম মিঠু মৃধা, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সদস্য মোঃ সাজ্জাদ হোসেন নয়ন, আওয়ামীলীগ নেতা গাজী সামসুল হক ও মোঃ আলতাফ হোসেন হাওলাদার প্রমুখ।

সভায় বক্তারা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দ্রুত কিশোর গ্যাং লিডার মোঃ ইসফাক আহম্মেদ ত্বোহা ও তার সহযোগীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।

গত ২৮ এপ্রিল রাতে উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খাঁন কাউন্সিলর রিয়াজ মৃধার কাছে পাওনা ৪১ হাজার টাকা নিয়ে বাসায় ফেরার পথে মিঠাবাজার এলাকায় কিশোর গ্যাং লিডার মোঃ ইসফাক আহম্মেদ তোহার নেতৃত্বে মেহেদী, জাকারিয়া, তৌকির, হাসান, রাকিব ও রবিউলসহ ১০-১২ জনের কিশোর গ্যাংয়ের হামলা স্বীকার হন। কিশোর গ্যাংরা তাকে হাতুড়ি পেটা করে তার সাথে থাকা ৭৬ হাজার টাকা, স্বর্নের চেইন ও দামী মোবাইল ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় গত ৩০ এপ্রিল আমতলী থানায় মামলা হয়েছে। ওই মামলায় এখনো কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

আমতলী উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খান কান্নাজনিত কন্ঠে বলেন, ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে আজ অবদি আওয়ামীলীগ রাজনীতি করে আসছি। বিএনপি জোট ও জাতীয় পার্টির আমলে আমি নির্যাতনের স্বীকার হয়েছি এখন দল ক্ষমতায় থেকেও আমি একটি মহলের ইন্ধনে নির্যাতনের শিকার হচ্ছি। আমি এ ঘটনার বিচার দাবী চাই।

আমতলী থানার ওসি মোঃ শাহ আলম হাওলাদার বলেন, আসামী গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা চালাচ্ছি। ইতিমধ্যে বিভিন্ন স্থানে আসামী গ্রেপ্তারের অভিযান চালানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.