চাটমোহর পৃথক দু’টি অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি, আহত-১

হেলালুর রহমান জুয়েল, চাটমোহর প্রতিনিধি

0 62

পাবনার চাটমোহরে একের পর এক অগ্নিকান্ডের ঘটনায় নিঃস্ব হচ্ছে পরিবার। অগ্নিদগ্ধ হয়ে মারা যাচ্ছে গরু-ছাগল। পুড়ে ছাই হচ্ছে নগদ টাকা ও ফসলাদি।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) দিবাগত রাত ১টার দিকে চাটমোহর উপজেলার ছাইকোলা ইউনিয়নের বোয়ালমারী গ্রামে রইচ উদ্দিনের বাড়িতে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে বাড়ির ৩টি ঘর,নগদ ৫০ হাজার টাকা,২টি ছাগল,১০/১২টি হাঁস-মুরগী,ফসলাদিসহ সব কিছু পুড়ে গেছে। ছাগলের ঘরে জ্বালানো মশার কয়েল থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা ও ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে। ছাগল বাঁচাতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন গৃহকর্তা এলফাজ আলীর রইচ উদ্দিন (৫৫)। তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ৩ লক্ষাধিক টাকা বলে পরিবারের সদস্যরা জানান। তবে আগুনে সবকিছু পুড়ে গেলেও ঘরে রাখা পবিত্র কোরআন শরীফটি ছিল অক্ষত।

এদিকে গত ৫ এপ্রিল উপজেলার পৈলজানা ইউনিয়নের কচিয়া বেতেপাড়ায় অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ৪টি বাড়ির ৭টি ঘর পুড়ে গেছে। ক্ষতির পরিমাণ ৭ লক্ষাধিক টাকা বলে ফৈলজানা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ হাণিফ উদ্দিন জানান। ওই গ্রামের তালুক আলীর ঘরে বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হলে তার ২ ছেলেসহ পাশের নুরতাজ আলীর বাড়িটি পুড়ে যায়।

চাটমোহর উপজেলা চেয়ারম্যান আ.হামিদ মাস্টার মঙ্গলবার সকালে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ ৪টি পরিবারকে দেখতে যান। তিনি এসময় ক্ষতিগ্রস্থদের আর্থিক সহায়তা করা ছাড়াও কম্বল ও খাদ্যসামগ্রী প্রদান করেন।

এরআগে গত ৩১ মার্চ উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের ধরইল গ্রামে আগুনে পুড়ে মারা গেছে ৯টি ছাগল। অগ্নিকান্ডের ঘটনায় দুইটি ঘর ভস্মিভূত হয়েছে।

প্রসঙ্গতঃ গত ১ মাসে চাটমোহর উজেলার হোগলবাড়িয়া, কৃষ্টপুর, কৈনুড়া, গুনাইগাছা, ধরইলসহ বিভিন্ন গ্রামে ৭টি অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে পরিবারগুলো নিঃস্ব হয়ে পড়ে।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.