আহত কুকুরের চিকিৎসায় চার চিকিৎসক

নীলফামারী প্রতিনিধি

0 13

নীলফামারীর সৈয়দপুরে আহত কুকুরকে উদ্ধার করে চিকিৎসা দিচ্ছেন চারজন চিকিৎসক। এতে দ্রুত আরোগ্য লাভ করছে কুকুরটি। বর্তমানে সৈয়দপুর বন্যপ্রানী সংরক্ষণ ও পরিচর্যা কেন্দ্রের নিবিড় পরিচর্যায় রয়েছে কুকুরটি।

৭মার্চ পাগল কুকুরের কামড়কে কেন্দ্র করে শহরে কুকুর মারার উৎসব শুরু হয়। সে সময় পাঁচ মাথা মোড় কলাহাটি নামক স্থানে একটি কোমড় ভাঙ্গা কুকুর পড়ে থাকতে দেখা যায়। সেই কুকুরটিকে কে বা কাহারা অযথা পিটিয়ে কোমর ভেঙ্গে দেয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুকুরের ছবিটি ভাইরাল হলে আলোচনা শুরু হয় শহর জুড়ে।

এরই মধ্যে বন্য প্রানী পরিচর্যা ও আহত প্রানীদের সাময়িক পরিচর্যা কেন্দ্রের সদস্যরা কুকুরটির চিকিৎসার জন্য খুঁজতে থাকে। পশু পাখি নিয়ে কাজ করা সংগঠন সেতু বন্ধনের সদস্যরা মাঠে নামেন এবং চলে মাইকিং।

গত ১৮ মার্চ রাত একটার দিকে সৈয়দপুর শহরের কলাহাটি রোডের নতুন মুন্সিপাড়া মোড় থেকে সেই কোমর ও পা ভাঙ্গা কুকুরটি উদ্ধার করে গভীর রাতেই উপজেলা পরিষদ চত্বরের বন্যপ্রাণী উদ্ধার ও সাময়িক পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়। উদ্ধার কাজে সহযোগিতা করেন ছাত্রলীগ নেতা কামাল হোসেন ও নওশাদ।

বর্তমানে কুকুরটির সেবা দিচ্ছেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ দফতরের ভেটেনারী সার্জন ডা. রফিকুল ইসলাম, ডিভিএম মো. জিম, ফিল্ড ভেটেনারী ফ্যাসিলেটর মো. সাজেদুর রহমানসহ আরো একজন চিকিৎসক।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাসিম আহমেদ জানান, পাখি পরিবেশ ও জীববৈচিত্র নিয়ে কাজ করা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন সেতুবন্ধনের সভাপতি আলমগীর হোসেনসহ অন্যান্য সদস্যরা আহত অবস্থায় কুকুরটি উদ্ধার করে। বর্তমানের চারজন চিকিৎসকের সার্বক্ষণিক চিকিৎসায় কুকুরটি দ্রুত আরোগ্য লাভ করছে। খুব শিগগিরই এটি অবমুক্ত করা হবে।

এই বিভাগের আরো খবর

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.