মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় মা’কে পুড়িয়ে হত্যা, ছেলে আটক

শেরপুর প্রতিনিধি

0 16

শেরপুরের শ্রীবরদীতে মায়ের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগে ছেলে আবু হানিফকে (১৭) আটক করে আদালতে সোপর্দ করেছে পুলিশ। দুর্ভাগা ওই মায়ের নাম হুনুফা বেগম (৩৮)। শনিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে পৌর শহরের তাঁতিহাটি পশ্চিমপাড়া এলাকা থেকে ওই পাষন্ড ছেলে আটক হয়।

পুলিশ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার তাঁতিহাটি পশ্চিমপাড়া এলাকার ইজারাদার সদাগর আলীর এক ছেলে ও দুই মেয়ে। এদের মধ্যে ছেলে আবু হানিফ সবার বড়। কিছুদিন যাবত মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কিনে দেয়ার বায়না ধরে আসছিল হানিফ। মা হুনুফা বেগম এতে রাজি না হওয়ায় গত রবিবার (১১ অক্টোবর) রাতে তার শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয় ছেলে। এতে মারাত্মকভাবে অগ্নিদগ্ধ হয় হুনুফা বেগম।

এ সময় তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে শেরপুর ও ময়মনসিংহ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেও তার অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। অবশেষে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানেও অবস্থার অবনতি হলে শেখ হাসিনা বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হলে সেখানে শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হুনুফার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহত হুনুফা বেগমের বড় ভাই শেরপুর শহরের চকপাঠক এলাকার বাসিন্দা দুলাল মিয়া বাদি হয়ে শনিবার ভাগনে আবু হানিফের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, আবু হানিফকে আটক করে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর
Loading...