প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য

0 14

গত ৭ অক্টোবর ২০২০ প্রকাশিত ‘নরসিংদীর সিভিল সার্জন অফিসের কর্মরত দুই কর্মচারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও স্বার্থ হাসিল করার অপচেষ্টা বিধায় ওই সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি আমি মো. মনসুর আহমেদ।

কোনো বক্তব্য না নিয়ে এবং কোনো প্রকার দালিলিক প্রমাণ ছাড়া কল্পনাপ্রসূত মিথ্যা সংবাদ প্রকাশ করায় আমার মানসম্মান ও সামাজিক এবং প্রাতিষ্ঠানিক মর্যাদা ক্ষুণ্ণ হয়েছে।

প্রতিবেদকের বক্তব্য : মনসুর আহমেদের সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত কোনো দ্বন্দ্ব ও স্বার্থ জড়িত নেই। কাজেই ব্যক্তিস্বার্থ চরিতার্থ ও হীন উদ্দেশ্যে এ রিপোর্ট করা হয়নি। তিনি তার প্রেরিত প্রতিবাদলিপিতে বলেছেন, ‘প্রকাশিত সংবাদটি সত্য নয় এবং তার মানসম্মান ক্ষুণ্ণ হয়েছে।’ কিন্তু বাড়িটি তার নিজের এবং তার স্ত্রীর নামে বলে স্বীকার করেছেন।  তিনি জানিয়েছেন, গৃহনির্মাণের আওতায় ঋণ নিয়ে তিনি বাড়িটি নির্মাণ করেছেন। কত টাকা ঋণ নিয়েছেন, এ কথা তিনি জানাতে ইচ্ছুক নন বলেও জানান। তবে পাঁচতলা বাড়িটি নির্মাণ করতে প্রায় এক কোটি টাকার মতো খরচ হয়েছে বলে জানা গেছে। বৈধভাবে নরসিংদী সিভিল সার্জন অফিসের একজন হিসাব সহকারীর এত টাকা রোজগার করা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। কাজেই কোনোরকম অসত্য ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে সংবাদটি প্রকাশিত হয়নি।

এ ছাড়া তিনি তার প্রতিবাদলিপিতে বলেন, তার কোনো বক্তব্য নেওয়া হয়নি। অথচ ফোকাস বিডি২৪ডটকম অনলাইন, সমকাল ও  বাংলাভিশনের নরসিংদী প্রতিনিধি তার বাড়িতে গিয়ে তাকে না পেয়ে মোবাইল ফোনে কথা হয় তার সঙ্গে, যা রেকর্ড করা রয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর
Loading...