দুই বাজারের দুই চিত্র, লেনদেনে ধীরগতি

ডেস্ক রিপোর্ট

0 6

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার (৪ অক্টোবর) লেনদেনের শুরুতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়লেও অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) দাম কমার সংখ্যা বেশি। এতে ডিএসইতে প্রধান মূল্য সূচক বাড়লেও সিএসইতে কমেছে।

দুই বাজারে সূচকের ভিন্ন পরিস্থিতিতে লেনদেনেও কিছুটা ধীরগতি দেখা দিয়েছে। প্রথম ঘণ্টায় ডিএসইতে ২৫০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। আর সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১০ কোটি টাকার কম।

আজ লেনদেনের শুরুতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেনে অংশ নেয়া প্রায় সবকটি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ে। এতে মূল্য সূচকের বড় উত্থান প্রবণতা দেখা দেয়া।

তবে সকাল সাড়ে ১০টার পর বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের দরপতন হয়। ফলে কমে সূচকের উত্থান প্রবণতা। এতে আধাঘণ্টার মধ্যে ২০ পয়েন্ট বেড়ে যাওয়া ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স প্রথম ঘণ্টার লেনদেন শেষে ১ পয়েন্ট কমে যায়। এরপর আবার বেশকিছু প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ে। এতে উর্ধ্বমুখী হয় প্রধান সূচক।

বেলা ১১টা ১৮ মিনিটে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক বেড়েছে ৪ পয়েন্ট। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ১ পয়েন্ট কমেছে। আর ডিএসই শরিয়াহ বেড়েছে ২ পয়েন্ট।

এ সময় পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১৬৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১২২টির। আর ৫৮টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। লেনদেন হয়েছে ২৭৬ কোটি ৫৫ লাখ টাকা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৮ পয়েন্ট কমেছে। লেনদেন হয়েছে ৯ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেয়া ১৫৬ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৫৭টির, কমেছে ৬৩টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৬টির।

এই বিভাগের আরো খবর
Loading...